আপেল জুস রেসিপি-তৈরি করুন বাড়িতেই!

যদি আপনি আপেল জুস খেতে ভালোবাসেন কিন্তু এর রেসিপি সম্পর্কে ভালোমতো জানেন না, তবে আজকের আর্টিকেলটি আপনার জন্য। নীচে আমরা পর্যায়ক্রমে আপেল জুস রেসিপি বর্ণনা করবো। 

আপেল জুস রেসিপি

আপেল জুস রেসিপি 

ইংরেজিতে একটা প্রবাদ আছে, “An Apple a day, keeps the doctor away.” প্রতিদিন একটি আপেল আপনাকে ডাক্তারের থেকে দূরে রাখবে। 

তবে বর্তমানে আমরা আস্ত একটা আপেল খাওয়ার চেয়ে এটিকে জুস করে খাওয়ায় বেশি পছন্দ করি। এছাড়া বাড়ির ছোট বাচ্চাদের জন্য জুস তৈরি করতেই হয়। তাই আপেল জুস রেসিপি ভালোভাবে জেনে নেওয়াটা জরুরি। 

প্রয়োজনীয় উপকরণ:

  • ২ টি আপেল। 
  • ৩ চামচ চিনি। 
  • ৬টি আইসকিউব। 
  • ১/২ চামচ লবণ এবং 
  • ১টি লেবু। 

কীভাবে বানাবেন

  • প্রথমে আপেলগুলি ভালোভাবে ধুয়ে নিন। তারপর খোসা ছাড়িয়ে ছুরি দিয়ে স্লাইস করুন।  
  • এরপর প্রতিটি স্লাইস করা টুকরো ব্লেন্ডারে ঢালুন এবং তাতে চিনি মেশান। অন্যরকম এক ফ্লেভারের জন্য পুদিনা পাতাও এড করতে পারেন। 
  • এরপর ব্লেন্ডারে পানি দিন যেন আপেলগুলি ডুবে যায়। তবে অতিরিক্ত পানি ব্যবহার করবেন না। এতে জুসের ফ্লেভার হারিয়ে যেতে পারে। 
  • ব্লেন্ড করুন যতক্ষণ না এটি জুসে পরিণত হয়। 
  • এরপর একটি গ্লাসে জুসটি ঢেলে নিন। প্রয়োজন হলে পানি মেশাতে পারেন। তবে তাতে সে অনুযায়ী চিনিও দিতে হবে। 
  • এবার এতে আইউসকিউব, লেবু, পুদিনা পাতা কিংবা মধু দিয়ে পরিবেশন করতে পারেন। 

সতর্কতা: 

  • আস্ত আপেল কখনো ব্লেন্ডারে দিবেন না। এবং অবশ্যই আপেলের বীজ এবং খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে। 
  • গ্যাস্ট্রিক রোগীর জন্য আপেলের রস ক্ষতি করতে পারে। 
  • এছাড়া জটিল কোনো রোগে আক্রান্ত ব্যক্তি যদি কোনো মেডিকেল কোর্সের মধ্যে থাকেন তাহলে অবশ্যই তাকে আপেল জুস খাওয়ার আগে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে। 

আপেল জুসের উপকারিতা

আপেলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ পুষ্টিগুণ। ভিটামিন এ, সি, ই এর দারুণ উৎস এটি। আপেল জুস আপনার শরীরে যথেষ্ট মাত্রায় ভিটামিন, খনিজ, ও এন্টিঅক্সিডেন্ট সরবরাহ করে। এছাড়াও এর বেশকিছু উপকারিতা রয়েছে যেমন:

  • পানিশূন্যতা দূর করে। 
  • হার্ট ভালো রাখে। 
  • ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়। 
  • ওজন কমায়। 
  • দেহে শক্তি বৃদ্ধি করে। 
  • ত্বক ভালো রাখে 
  • খাদ্য পরিপাকে সাহায্য করে। 
  • হজমে সহায়তা করে। 
  • কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। 

উপসংহার 

এখানে মূলত আমরা বেসিক আপেল জুস রেসিপি তুলে ধরেছি। এছাড়াও আপনি অন্যরকম ফ্লেভার আনতে এর সাথে অন্যান্য উপাদান যোগ করতে পারেন। সকালের নাশতায় সবার জন্য আপেল জুস তৈরি করে আপনার পরিবারকে রাখতে পারেন সুস্থ ও সুন্দর।

শেয়ার করুন-

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top