চুল পড়া রোধে প্রাকৃতিক উপায় – ১৫টি সেরা টিপস

চুল পড়া রোধে প্রাকৃতিক উপায় – চুল পড়া বিশ্বব্যাপী অন্যতম সাধারণ সমস্যা; জনসংখ্যার এক তৃতীয়াংশকে এই সমস্যা প্রভাবিত করে । প্রত্যেকের প্রতিদিন গড়ে ৫০-১০০ টি চুল পড়ে যায়।

এটি একটি প্রাকৃতিক ঘটনা; তাই কয়েকটা চুল পড়ে যাওয়ার কারণে চিন্তা করার দরকার নেই। চুল পড়ার অনেক কারণ থাকতে পারে যার মধ্যে ডায়েট, খনিজ ঘাটতি, ওষুধাদি, চাপ, দূষণ এবং জিনেটিক্স অন্তর্ভুক্ত।

চুল পড়া কমাতে বা মোকাবেলা সহায়তা করার জন্য আমাদের ১৫ টি সমাধানের তালিকা এখানে রয়েছে।

#১ নিয়মিত হালকা শ্যাম্পু দিয়ে আপনার চুল মেসেজ করুন- চুল পড়া রোধে প্রাকৃতিক উপায়

নিয়মিত শ্যাম্পু দিয়ে চুল মেসেজ করলে চুলের স্বাস্থ্য ভালো থাকে,সাপ্তাহে ৩ থেকে ৪ বার শ্যাম্পু করা উচিত। এতে চুল ভালো এবং খুশকি মুক্ত থাকবে।

#২ প্রয়োজনীয় ভিটামিন গ্রহণ

ভিটামিন সামগ্রিক সুস্থতার জন্য ভিটামিন কেবল স্বাস্থ্যকরই নয়, আপনার চুলের জন্যও অত্যন্ত ভাল। চুলের ফলিকগুলি উত্পাদনশীল রাখতে এবং ভিটামিন বি চুলের স্বাস্থ্যকর রঙ বজায় রাখতে সহায়তা করে ভিটামিন অ্যাস্কুলের মাথার সিবামের স্বাস্থ্যকর উত্পাদন, মাথার ত্বকে রক্ত ​​সঞ্চালনকে আরও ভাল করে তোলে।

#৩ প্রোটিনের সাথে ডায়েট সমৃদ্ধ করুন-

মাংস,মাছ,সয়া বা অন্যান্য প্রোটিন খাওয়া চুলের স্বাস্থ্যের জন্য গুরুত্বপূর্ণ এবং ফলস্বরূপ চুলের ক্ষতি কমাতে সহায়তা করে।

#৪ তেল দিয়ে মাথার ত্বকে ম্যাসাজ করুন-

চুলের যত্নে তেল খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তাই অবশ্যই কয়েক মিনিটের জন্য প্রয়োজনীয় তেল দিয়ে মাথার ত্বকে মাসাজ করতে হবে। এটি আপনার চুলের ফলিকাগুলি সক্রিয় রাখতে সহায়তা করে।

#৫ ভেজা চুল ব্রাশ করা এড়িয়ে চলুন-

চুল পড়া রোধে প্রাকৃতিক উপায়

চুল ভেজা থাকলে, তখন এটি তার দুর্বল অবস্থায় থাকে। তাই ভেজা চুল ব্রাশ করা এড়িয়ে চলুন কারণ চুল পড়ার সম্ভাবনা অতিরিক্ত বেড়ে যায়। তবে আপনার যদি ভেজা চুল ব্রাশ করেন তবে খুব প্রশস্ত-দন্তযুক্ত চিরুনি ব্যবহার করতে হবে। চুল এর ক্ষতি এড়াতে চুল বার বার চুল ব্রাশ করা এড়িয়ে চলুন।

#৬ পেঁয়াজের রস- চুল পড়া রোধে প্রাকৃতিক উপায়

আপনার মাথার ত্বকে একটি পেয়াজের রস ঘষুন, এটি সারা রাত রেখে সকালে ধুয়ে ফেলুন। এটি এক সপ্তাহের জন্য নিয়মিত করতে থাকুন এবং আপনি লক্ষণীয় ফলাফল দেখতে পাবেন।

#৭ নিজেকে হাইড্রেটেড রাখুন- চুল পড়া রোধে প্রাকৃতিক উপায়

চুলের শ্যাফটে এক চতুর্থাংশ পানি  থাকে তাই হাইড্রেটেড থাকার জন্য এবং স্বাস্থ্যকর চুলের বৃদ্ধির জন্য কমপক্ষে ছয় থেকে দশ গ্লাস পানি পান করুন।

#৮ চুলের জন্য কী ক্ষতিকর তা জানুন-

আপনি যদি চুলকে স্বাস্থ্যকর রাখতে চান তবে কীভাবে তাদের যত্ন নেওয়া যায় তা আপনার অবশ্যই জানা উচিত। তোয়ালে দিয়ে চুল শুকিয়ে যাওয়া এড়িয়ে চলুন। বরং প্রাকৃতিকভাবে চুল শুকিয়ে দিন।

#৯ ধূমপান

ধূমপান থেকে বিরত থাকুন সিগারেট ধূমপানের ফলে মাথার ত্বকে রক্তের পরিমাণ প্রবাহিত হয় এবং চুলের বৃদ্ধিতে ক্ষতি করে। তাই আপনি ধূমপান করে থাকলে এটি বর্জন করুন।

#১০ শারীরিক কার্যকলাপ-

শারীরিক কার্যকলাপ জন্য সময় নিয়মিত  দিনে ৩০ মিনিটের জন্য হাঁটুন, সাঁতার বা সাইক্লিং হরমোন স্তরকে ভারসাম্য বজায় রাখতে সহায়তা করে, চুল পড়া কমাতে চাপের মাত্রা হ্রাস করে।

#১১ স্ট্রেস- চুল পড়া রোধে প্রাকৃতিক উপায়

চুল পড়ার সাথে মানসিক চাপ যুক্ত থাকার  প্রমাণ রয়েছে। ধ্যান এবং যোগের মতো বিকল্প চিকিত্সা কেবল চাপ হ্রাস করে না তবে হরমোনীয় ভারসাম্য পুনরুদ্ধার করে।

#১২ আপনার মাথার ঘাম মুক্ত রাখুন- চুল পড়া রোধে প্রাকৃতিক উপায়

তৈলাক্ত চুলযুক্ত পুরুষদের, ঘামের কারণে গ্রীষ্মে খুশকির অভিজ্ঞতা হয় এবং চুল পড়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। অ্যালোভেরা এবং নিমযুক্ত শ্যাম্পু ব্যবহারে মাথা ঠাণ্ডা থাকে এবং খুশকি থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

#১৩ ওষুধে নজর রাখুন

কিছু ওষুধের পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া থাকতে পারে, এর জন্যে চুলের  ক্ষতিও হতে পারে। আপনার কী অবস্থা হতে পারে তা জানতে ডাক্তারের পরামর্শ নিন। ওষুধ চুল পড়া ক্ষতিগ্রস্ত করছে কিনা তা  তাকে জানান এবং যদি এটি হয় তবে ওষুধটি পরিবর্তন করতে বলুন।

#১৪ রাসায়নিক থেকে দূরে রাখুন

কঠোর রাসায়নিক এবং স্থায়ী চুলের রঙের পণ্যগুলি চুলের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকারক হতে পারে। আপনি যখন চুল হারাচ্ছেন, তখন আপনার চুল রঙ না করার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

চুল পড়া রোধ করার অন্যান্য উপায়-

#১৫ বায়োটিন- চুল পড়া রোধে প্রাকৃতিক উপায়

ভিটামিন এইচ নামে পরিচিত বায়োটিন হ’ল বি জটিল ভিটামিনগুলির মধ্যে একটি যা আমাদের দেহকে শক্তিকে রূপান্তর করতে সহায়তা করে। গবেষণায় দেখা যায় যে, আপনার ডায়েটে বায়োটিন সমৃদ্ধ খাবার অন্তর্ভুক্ত করা বা বায়োটিন পরিপূরক গ্রহণের ফলে চুল পড়া ধীর হতে পারে। যদি আপনি চুল পড়ার সমস্যা নিয়ে কাজ করে থাকেন তবে আপনার ডায়েটে বায়োটিন সমৃদ্ধ খাবার বাদাম, মিষ্টি আলু, ডিম, পেঁয়াজ এবং ওট যুক্ত করুন

আরো পড়ুন-

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *