ডাবের পানির উপকারিতা – খালি পেটে ডাবের পানি পান করলে কি হয়?

ডাবের পানির উপকারিতা – সকালে কেউ কেউ এক কাপ চা দিয়ে দিন শুরু করেন, আবার কেউ কেউ গরম পানি দিয়ে। এগুলো ছাড়াও সকালে ঘুম থেকে ওঠার সাথে সাথে খালি পেটে ডাবের পানি পান করাও একটি ভাল বিকল্প হতে পারে। 

ডাবের পানি স্বাদ ছাড়াও শরীরে অনেক উপকার সরবরাহ করে। ডাবের পানির উপকারিতা কি কিংবা খালি পেটে ডাবের পানি পান করলে কি কি উপকার হয়? আজকের নিবন্ধে আমরা এই বিষয়ে বিস্তারিত পর্যালোচনা করবো। তাহলে চলুন শুরু করা যাক।

ডাবের পানির উপকারিতা

ডাবের পানির উপকারিতা – খালি পেটে ডাবের পানি পান করলে যা হয়ঃ

ডাবের পানি পান করার অনেকগুলো সুবিধা রয়েছে। ডাবের পানির বিষয়ে এ পর্যন্ত অনেক গবেষণা হয়েছে, যা প্রমাণ করেছে যে এটি অত্যন্ত উপকারি। তবে খালি পেটে ডাবের পানি পান করার বিষয়ে পরিষ্কার গবেষণা পাওয়া যায় না। এই ভিত্তিতে, আমরা খালি পেটে ডাবের পানি পান করার উপকারিতা আরও ব্যাখ্যা করছিঃ 

হজমের জন্য 

খালি পেটে ডাবের পানি পান করলে খাবার হজমে কোন ধরণের সমস্যা হয় না। খাবার ঠিক মতো হজম না হলে পেট খারাপ, ডায়রিয়া, অ্যাসিডিটি এবং কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দেখা দিতে পারে। একটি গবেষণায় দেখা যায় যে, ডাবের পানি ডায়রিয়া এবং পেটের বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করতে পারে।

>> গ্যাস্ট্রিক আলসার এর লক্ষণ । আলসার ভালো করার উপায় সহ বিস্তারিত!

ডায়াবেটিস

খালি পেটে ডাবের পানি পান করলে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কিছুটা কমতে পারে। প্রকৃতপক্ষে, ডাবের পানিতে ডায়াবেটিসের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে এমন অ্যান্টিবায়াবেটিকের প্রভাব রয়েছে। এটি শরীরে ইনসুলিন হরমোন বাড়িয়ে তুলতে পারে, যা ডায়াবেটিস হ্রাস করার জন্য ভাল বলে বিবেচিত হয়। শুধু তাই নয়, ডাবের পানি পান করলে ডায়াবেটিসের সাথে সম্পর্কিত গ্লাইকেটেড হিমোগ্লোবিনের মাত্রা হ্রাস পেতে পারে, যা ডায়াবেটিসের ঝুঁকি হ্রাস করে।

>> ডায়াবেটিস হলে কি করণীয়, ডায়াবেটিস কমানোর উপায় জেনে নিন!

কিডনিতে পাথর – ডাবের পানির উপকারিতা 

কিডনিতে পাথর সমস্যায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের আরও বেশি করে তরল পান করার পরামর্শ দেওয়া হয়। এটি কিডনিতে উপস্থিত স্ফটিক জাতীয় পদার্থকে মুছতে সহায়তা করতে পারে যা মূত্রনালীর থেকে পাথরে রূপ নেয়। 

গবেষণা বলছে যে ডাবের পানি কিডনি টিস্যুতে স্ফটিক জমাট বাঁধা রোধ করার ক্ষমতা রাখে। শুধু এটিই নয়, এটি প্রস্রাবের স্ফটিকের সংখ্যা হ্রাস করতেও সহায়তা করে। তাই বলা যায়, ডাবের পানি কিডনিতে পাথর প্রতিরোধে সহায়তা করতে পারে।

>> কিডনি রোগের ঘরোয়া চিকিৎসা |লক্ষণ,ঝুঁকি,প্রয়োজনীয় টেস্ট, ঔষধ সহ বিস্তারিত!

ওজন নিয়ন্ত্রণে সহায়ক

ওজন কমাতে ইচ্ছুকরা ডাবের পানি খেতে পারেন। এটিতে প্রচুর পরিমাণে ডায়েটরি ফাইবার রয়েছে। গবেষণা পরামর্শ দেয় যে, ডায়েটে আরও ফাইবার দেওয়া ওজন বৃদ্ধি এবং ফ্যাট এর ঝুঁকি হ্রাস করতে পারে । এই ভিত্তিতে, এটি বলা যেতে পারে যে খালি পেটে ডাবের পানি পান করা ওজন নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করতে পারে। এছাড়াও, ওজন হ্রাস করতে অনুশীলন এবং যোগব্যায়াম করতে ভুলবেন না।

>> BMI কি? আপনার উচ্চতা অনুযায়ী সঠিক ওজন জানুন!

হার্ট সুস্থ্য রাখে – ডাবের পানির উপকারিতা 

ডাবের পানি হৃদপিণ্ডকে সুস্থ রাখতে সহায়ক হতে পারে। বৈজ্ঞানিক গবেষণা অনুসারে, ডাবের পানিতে উপস্থিত অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট এবং অ্যামিনো অ্যাসিড হার্টকে সুস্থ রাখতে সহায়তা করে। গবেষণায় দেখা গেছে যে, এটি লিপিড হ্রাস করে হার্টকে রোগ থেকে রক্ষা করতে করে থাকে। এটিতে একটি কার্ডিও প্রতিরক্ষামূলক প্রভাবও রয়েছে, যা স্ট্রোক এবং অন্যান্য সমস্যাগুলো প্রতিরোধ করতে পারে। তাহলে আমরা বুঝতে পারলাম যে, খালি পেটে ডাবের পানি পান করার সুবিধার মধ্যে হৃদরোগও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

রক্তচাপ

ডাবের পানি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে উপকারি বলে বিবেচিত হয়। গবেষণায় প্রমাণিত হয় ডাবের পানিতে প্রচুর পরিমাণে পটাসিয়াম থাকে, যার কারণে এটি রক্তচাপ হ্রাসে সহায়ক হিসাবে কাজ করে।

>> হাই প্রেসার কমানোর উপায় কি ? জেনে নিন ৭টি ঘরোয়া সমাধান-

খালি পেটে নারকেল জল কীভাবে পান করবেন

ডাবের পানি পান করার সুবিধা পেতে, এটি কীভাবে পান করতে হয় তা জেনে রাখা গুরুত্বপূর্ণ। আপনি চাইলে এটিকে আপনার ডায়েটে অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন।

  • সকালে খালি পেটে অনুশীলন করার পরে, আপনি এনার্জি ড্রিংক হিসাবে এটি পান করতে পারেন।
  • সকালে ঘুম থেকে উঠে পানির পরিবর্তে ডাবের পানি পান করা ভাল।
  • পানিতে পুদিনা পাতা এবং কয়েক ফোঁটা লেবুর রস যোগ করেও ডাবের পানি পান করা যায়।
শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *