বার্সেলোনা বনাম রিয়াল মাদ্রিদ

এল- ক্লাসিকোর দামামাঃ ঘুমন্ত ফিনিক্স কি আবার জেগে উঠবে?

স্প্যানিশ সুপার কাপে আবার দেখা হচ্ছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী কাতালুনিয়ান ক্লাব বার্সেলোনা ও রাজকীয় মাদ্রিদ তথা রিয়াল মাদ্রিদের। ১৩ই জানুয়ারি স্পেনিশ সুপারকাপের সেমিফাইনালে দুই দল মুখোমুখি হচ্ছে।

এক দিকে মেসিবিহীন ধুঁকতে থাকা বার্সেলোনা, অন্যদিকে আনচেলত্তির অধীনে উড়তে থাকা রিয়াল মাদ্রিদ, একজন কঠোর কিউলও জানেন যে ম্যাচে জয় পাওয়া বার্সার পক্ষে অনেকটাই কঠিন। অন্তত দলের সর্বশেষ পারফর্মেন্স সেটাই বলে!

নভেম্বরে বার্সার দায়িত্ব নেয়ার পর বার্সা কিংবদন্তী ও বর্তমান বস জাভি হার্নান্দেজ তেমন কিছুই করে দেখাতে পারেননি! মেসি চলে যাওয়ার পর ধুঁকতে থাকা বার্সাকে টেনে নিয়ে যাওয়ার প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন তরুণদের মাধ্যমে। সম্প্রতি সময়ে আগুয়েরোর অসুস্থতাজনিত ‘হঠাৎ’ অবসর জাভির কপালে চিন্তার ভাঁজ আরও বাড়িয়েছে।

বার্সার আরেক দুশ্চিন্তার নাম ডিফেন্স। সর্বশেষ ৭ ম্যাচে ১০ গোল হজম করা তেমনটাই বলছে, অন্যদিকে আক্রমণভাগও ছন্দহীন। তবে রিয়ালের বিপক্ষে আনসু ফাতি বার্সার হয়ে ফিরবেন বলে জানিয়েছেন জাভি হার্নান্দেজ, যা ভক্তদের জন্য একটু হলেও স্বস্তিদায়ক।

ফুটবল নিয়ে আরও পড়ুন…

অন্যদিকে আনচেলত্তির অধীনে যেন উড়ছে রিয়াল। গেটাফের সাথে ১-০ ব্যবধানে হার তাদের অপরাজিত থাকার গতি রোধ করতে পারলেও তাদের সাফল্যের চাকা বন্ধ করতে পারেনি। সার্জিও রামোস-রাফায়েল ভারানের মতো দুই গ্রেট ডিফেন্ডারের ক্লাব ছাড়ার পরেও রিয়ালের ডিফেন্সে এতটুকু সমস্যা হয়নি।

আরেকদিকে বদলে যাওয়া ‘ভিনিসিয়াস’ এখন রিয়ালের অন্যতম ভরসা। টনি ক্রুস-মড্রিচ-ক্যাসেমিরোর মত অভিজ্ঞদের সাথে রদ্রিগো-ভিনিসিয়াসদের তরুণদের নিয়ে দারুণ এক কম্বিনেশন করেছেন আনচেলত্তি। যার ফলাফল সাফল্য এসে ধরা দিচ্ছে হাতের মুঠোয়।

পরিসংখ্যান রিয়ালের পক্ষে। স্প্যানিশ সুপারকাপে বিগত ১৪ টি দেখায় ৮ বার জিতেছে রিয়াল মাদ্রিদ, অন্যদিকে বার্সার জয় কেবল ৪ টি। বাকি দুই ম্যাচ ড্র।

এল ক্লাসিকোয় সর্বোচ্চ উপস্থিত থাকা ব্যক্তি(রামোস) ও সর্বোচ্চ গোল করা ব্যক্তি(মেসি), দুইজনেই ক্লাব ছেড়েছেন, দুইজনেই একসাথে পিএসজিতে খেলছেন। রামোসের যাওয়ায় রিয়ালের তেমন বড় সমস্যা না হলেও মেসির ক্লাব ছাড়ার পর বার্সেলোনা এখনো ধু্ঁকছে। 

এল ক্লাসিকো মানেই মেসি-রোনালদোর লড়াই, অন্তত গত দশকটা এমনই ছিল। এখন মেসি রোনালদো দুই ভুবনের বাসিন্দা, মেসি খেলেন ফরাসি লীগে, অন্যদিকে রোনালদো পাড়ি জমিয়েছেন তার ‘হোম’ ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেডে।

তারা নেই, তাতে কী? কোটি ভক্তের শিহরণ জাগানো এল ক্লাসিকো আবারও শিহরণ জাগাবে, আবারও রিয়াল-বার্সা ম্যাচ নিয়ে তর্ক হবে দেশের প্রতিটি কোণায়, বিশ্বের ফুটবল পাড়ায় এমনটাই প্রত্যাশা সকল ফুটবল ভক্তদের। রঙ লাগুক এল ক্লাসিকোয়, জেগে উঠুক ফিনিক্স পাখির মত, জয় হোক ফুটবলের।

শেয়ার করুন-

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top