মুখের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির উপায়

মুখের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির ৯টি ঘরোয়া উপায় জানুন!

crickex banner ad

নারী হোক বা পুরুষ, সকলেরই আকাঙ্খা ফর্সা, উজ্জ্বল ও দাগহীন ত্বকের। আর তাই মুখের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির উপায় জানতে সকলেই মরিয়া। 

ঘরোয়া কিছু উপায়ে মুখের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করা যায়। উপায়গুলি জানতে লেখাটি পড়ে ফেলুন ঝটপট। 

মুখের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির উপায়

ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য নানা প্রসাধনী ব্যবহার করা হয়। কিন্তু এগুলোতে থাকা কেমিক্যাল পদার্থ ত্বকের উন্নতি করে না। বরং ত্বকের ক্ষতিই করে। তাই ঘরোয়াভাবে মুখের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির উপায় জানা জরুরি। 

পাতিলেবু

ত্বকের যত্নে লেবু অত্যন্ত উপকারী। লেবুতে থাকা সাইট্রিক এসিড ও ভিটামিন সি ত্বকের অতিরিক্ত তেল দূর করে উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনে। 

এক চা চামচ লেবুর রসের সাথে সামান্য পরিমাণ চিনি মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে ভালভাবে ম্যাসাজ করুন। কিছুক্ষণ রেখে তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পাবে।

দুধ

দুধ আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য যেমন উপকারী তেমনি ত্বকের যত্নেও দারুণ ক্লিনজার হিসেবে কাজ করে। প্রতিদিন রাতে শোয়ার পূর্বে এক চা চামচ দুধ নিয়ে এক টুকরো তুলা দিয়ে মুখে ২০ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। এরপর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত এটি করলে ত্বক নরম ও মসৃণ হবে।

এলোভেরা 

মুখের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির উপায় হিসেবে এলোভেরার জুড়ি নেই। সর্বাধিক ব্যবহৃত এই উপাদানটি নির্দিষ্ট নিয়মের তাই ব্যবহার করা জরুরি। মুখের কালো দাগ দূর করার উপায় হিসেবে ও এটি ব্যবহার করতে পারেন।

এক টেবিল চামচ এলোভেরার জেলের সাথে এক চা চামচ মধু আর এক চা চামচ কাঁচা দুধ একত্রে মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে রাখুন। আধাঘন্টা পর হালকা কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই পদ্ধতিটি সপ্তাহে অন্তত দুই দিন করুন। এতে শুধু ত্বক উজ্জ্বলই হবে না, ত্বকের ইনফেকশন, দাগ ইত্যাদি সমস্যা দূর হয়ে ত্বক লাবন্য ও মসৃণ হয়ে উঠবে। 

তুলসীপাতা 

তুলসীপাতা ন্যাচারাল এন্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ। যা ত্বকের জন্য এবং স্বাস্থ্যের জন্যও উপকারী। তুলসীপাতা বেটে মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এতে মুখে ঠান্ডা ও সতেজ ভাব আসবে। 

এছাড়াও তুলসীপাতা দিয়ে চা পান করলে অথবা তুলসীপাতা এমনি চিবিয়ে খেলে মুখের উজ্জ্বলতা সহজেই বৃদ্ধি পাবে। মুখের উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনার উপায় জেনে নিন!

গাজর

গাজর শুধু স্বাস্থ্যের জন্যই উপকারী নয়, ত্বকের যত্নেও বেশ উপকারী। এতে আছে ভিটামিন এ, যা ত্বক টানটান করতে সাহায্য করে। 

আর গাজর বেটে রস বের করে এক চা চামচ মধু ও এক চা চামচ টকদই একত্রে মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে আধাঘন্টা অপেক্ষা করুন। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে এক থেকে দুই দিন করুন। এতে ত্বক মসৃণ এবং উজ্জ্বল দেখাবে।

পেঁপে 

মুখের উজ্জ্বলতা বাড়ায় পেঁপে। পেঁপেতে আছে ভিটামিন এ এবং ভিটামিন সি, যা ত্বকের জন্য বেশ কার্যকর। এক টেবিল চামচ পাকা পেঁপের সঙ্গে দুই চা চামচ শশার রস আর অর্ধেক পাকা কলা চটকে পেস্ট তৈরি করুন। এই প্যাক মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের মৃত কোষ দূর করে ত্বককে লাবণ্যময় করে তুলবে। 

চন্দন গুড়ো 

ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে চন্দন গুড়োর জুড়ি নেই। দুই চা-চামচ চন্দন গুড়ো, এক চা চামচ হলুদের গুড়ো, ও তিন চা চামচ বেসন আর এক চা-চামচ গোলাপ জল একত্রে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। প্যাকটি মুখে লাগিয়ে আধাঘন্টা পর ধুয়ে ফেলুন। 

সপ্তাহে দুই দিন প্যাকটি ব্যবহার করতে হবে। এতে মুখ শুধু উজ্জ্বল হবে ও ত্বকের যাবতীয় সমস্যা দূর হবে। 

হলুদ 

হলুদ ত্বকের জন্য একটি উপকারী উপাদান। কারণ হলুদে রয়েছে এন্টিঅক্সিডেন্ট যা ত্বকের মরা কোষ দূর করে ত্বক কে উজ্জ্বল করে তোলে। 

এক চা চামচ হলুদ ও চার চা চামচ বেসনের সাথে পরিমাণ মতো দুধ নিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্ট মুখ ও গলায় লাগিয়ে ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুইবার কাচা হলুদ ব্যবহার করলে ত্বকের রং ক্রমশ উজ্জ্বল হতে শুরু করবে। মুখে গ্লো আনার ঘরোয়া ৫টি উপায় জেনে নিন!

মুলতানি মাটি 

মুলতানি মাটি ত্বকের যত্নে একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। তিন চা চামচ মুলতানি মাটি, এক চা চামচ গোলাপ জল আর পরিমাণ মতো চন্দন গুড়া নিয়ে একসাথে মিশিয়ে মুখে ও গলায় লাগিয়ে শুকনো হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। এরপর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন সাথে সাথে মুখে একটা সতেজ ভাব আসবে। 

শেষ কথা 

উপরে উল্লিখিত ঘরোয়া টিপস্ গুলি মুখের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির উপায় হিসেবে বেশ কার্যকর। প্রাকৃতিক উপাদান গুলো ব্যবহারের পাশাপাশি ভিটামিন যুক্ত পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে। পরিমাণ মতো পানি পান, ও সঠিক ঘুম ত্বকের যত্নেও সাহায্য করে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top