লাসিথ মালিঙ্গা : ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক ক্রিকেট থেকে বিদায়ের সময় হয়েছে!

 লাসিথ মালিঙ্গা নিজের পরিবারের সাথে আলাপ আলোচনা করে একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।  তিনি জানিয়েছেন ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক ক্রিকেট লীগগুলো আর খেলবেন না।এমনটাই জানিয়েছে তার আইপিএল টিম মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।  তিনি চাচ্ছেন পরিবারের সাথে আরো বেশি সময় কাটাতে।

বিস্তারিতঃ

 মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স জানিয়েছে, ‘লাসিথ মালিঙ্গা তার পরিবারের সাথে দীর্ঘ আলাপ-আলোচনা করে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এখন থেকে তিনি আর কোন ফ্র্যাঞ্চাইজি-ভিত্তিক ক্রিকেটে খেলবেন না। করোনা মহামারীর কারণে অনেক দেশেই ভ্রমণের ক্ষেত্রে অনেক ঝামেলা পোহাতে হয়।  এই সময় বিভিন্ন দেশে গিয়ে  ফ্র্যাঞ্চাইজি-ভিত্তিক ক্রিকেট খেলাটা অনেকটাই কঠিন। তাই লাসিথ মালিঙ্গা আগামী মৌসুমে থেকে এধরনের সকল ক্রিকেট না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।’

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স তাদের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় লাসিথ মালিঙ্গার এই সিদ্ধান্তকে শ্রদ্ধা করছে। ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিক আকাশ আম্বানি মালিঙ্গাকে তার পরবর্তী জীবনের জন্য শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

আরো পড়তে পারেন-

মালিঙ্গা ১২ বছর ধরে এই দলটির সাথে ছিল। তিনি ১২২ টি ম্যাচ মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে খেলেছেন।

আকাশ আম্বানি আরো বলেন,  ‘আমরা তার সিদ্ধান্তকে শ্রদ্ধা জানাই আমরা যদি আরো ৫ বছর তাকে আমাদের বলেন বোলিং আক্রমণে পেতাম এটা আমাদের জন্য বেশ ভাল হত।’ 

মালিঙ্গাকে আকাশ আম্বানি ‘মুম্বাই কিংবদন্তি’ নামে অভিহিত করেছেন।  তিনি আরো বলেন, ‘মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে লাসিথ মালিঙ্গার নামে দর্শকরা যে স্লোগান দিত, সেটি আমরা খুব বেশি মিস করবো।  তিনি মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স পরিবারের একজন। সে চাইলে যেকোনো ভূমিকায় আমাদের দলের সাথে যুক্ত হতে পারে।  এবং তার অভিজ্ঞতা আমাদের জন্য ভবিষ্যতে বেশ গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ হতে পারে।’

মুম্বাইয়ের হয়ে মালিঙ্গা ১২২ ম্যাচ খেলে ১১৭ উইকেট নিয়েছেন।১৯.৮০ গড়ে  বল করেছেন ৪৭১.১ ওভার। তিনি ৪ উইকেট নিয়েছেন ছয়বার এবং একবার ৫ উইকেট নিতে সক্ষম হন।

লাসিথ মালিঙ্গা আরো অনেক দেশেই ফ্র্যাঞ্চাই-জিভিত্তিক ক্রিকেট খেলেছেন।  তিনি বিপিএলে খুলনা টাইগার্স এবং রংপুর রাইডার্সের হয়ে খেলেছিলেন। তিনি সর্বমোট ২৯৫ টি  প্রীতি ম্যাচ খেলেছেন। ৩৯০  উইকেট নিয়ে তার ফ্র্যাঞ্চাইজি-ভিত্তিক ক্রিকেটের সমাপ্তি হল।

আরো পড়ুন-

শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *