লুডু খেলার নিয়ম ও টেকনিক । ইতিহাস সহ বিস্তারিত জেনে নিন!

লুডু খেলার নিয়ম ও টেকনিক সম্পর্কে কমবেশি আমরা সবাই জানি। শীতের রাতে পরিবারের সাথে লুডু খেলার সুবাদে এর নিয়নকানুন গুলো আমাদের সকলেরই জানা। বর্তমান বিশ্বে এই লুডু খেলা মানুষের কাছে অন্যতম বিনোদনের একটি মাধ্যম। ঘরে কিংবা বাইরে শিশু থেকে  বৃদ্ধ প্রায় সকলেই  তাদের অবসর সময়টাকে আনন্দময় করতে  এই খেলায় অংশগ্রহণ করে থাকে। 

যে কোন মৌসুমেই লুডু খেলা হয়ে থাকে তবে শীতকালে অন্য মৌসুমের তুলনায় একটু বেশিই হয়। শীতকালে শৈতপ্রবাহের কারণে,  বিশেষ করে মেয়েরা  ঘর থেকে বের না হয়ে তাদের অবসর সময়টুকু পরিবারের সাথে লুডু খেলেই কাটায়।  বিভিন্ন দেশ তাদের  বৈচিত্র্য অনুযায়ী ভিন্ন নামে এই খেলার নামকরণ করেছে। এবং এটি বেশ জনপ্রিয় একটি খেলা।  

আজকের পর্বে আমরা লুডু খেলার নিয়ম টেকনিক সম্পর্কে সংক্ষেপে  আলোচনা করবো। 

লুডু খেলার উৎপত্তিঃ

লুডু একটি ল্যাটিন শব্দ। ল্যাটিন শব্দ লদো থেকে লুডুর উৎপত্তি। লদো এর অর্থ হচ্ছে আই প্লে। যার মানে হচ্ছে আমি খেলি। হিন্দি নাম পাচিসি বা বাংলা পাশা থেকেও এই খেলার উৎপত্তি হয়েছে বলে জানা যায়। 

লুডুর প্রকারভেদঃ-

যেসকল নামে লুডু খেলা পৃথিবীব্যাপী প্রচলিত রয়েছে তা হলোঃ-

  • ঘর খেলা
  • সাপ খেলা
  • পৃথিবী ভ্রমণ 

এগুলোকে লুডুর কয়েকটি শাখাও বলা চলে।

লুডু খেলার নিয়ম ও টেকনিক

লুডু খেলার নিয়ম ও টেকনিকঃ

এই খেলায় সাধারণত ২ থেকে ৪ জন খেলোয়াড় প্রয়োজন হয়। এই খেলায় প্রতিটি খেলোয়াড়ের ৪ টি করে গুটি থাকে। প্রতিটি গুটির রং ভিন্ন হয়। প্রতিটি খেলোয়াড় তাদের গুটির রং অনুসারে নিজ নিজ ঘর দখল করে। 

লুডু বোর্ডের শুরুতে স্টপ থাকে। মোট স্টপের সংখ্যা ৪ টি। স্টপে কারো গুটি কেউ খেতে পারে না। খেলা শুরু হওয়ার পর যতক্ষন প্রর্যন্ত কোন খেলোয়াড় ছক্কা ফেলতে না পারে ততক্ষণ প্রর্যন্ত সে গুটি বের করতে পারে না। ছক্কা ফেলা মাত্র উক্ত খেলোয়াড় তার নিজের গুটি বের করে।

 কোন খেলোয়াড় পরপর ৩ বার ছক্কা ফেললে তার দান বাতিল হয়। তাকেই পুনরায় চাল দিতে হয়। প্রতিটি খেলোয়াড় তাদের ঘর থেকে গুটি বের করে পুরো ছক একবার পার করে ফিনিশিং লাইনে পৌছিয়ে তার ৪ টি গুটি তুলে দিতে পারলে তাকে বিজয়ী হিসেবে ধরা হয়। বাকিরা পর্যায়ক্রমে ২য়, ৩য়, ৪র্থ হয়। 

গুটি খাওয়ার নিয়মঃ

লুডু খেলায় উক্ত খেলোয়াড়ের বোর্ডে তার ১ টি গুটি অবশিষ্ট থাকলে সে  অপরের গুটি খেতে পারবে না। বোর্ডে প্রত্যেক খেলোয়াড়ের সর্বনিম্ন দুটি গুটি থাকলে একে অপরের সাথে কাটাকাটি করতে পারবে। একটি গুটি দিয়ে অন্যের গুটি খেয়ে বাকি গুটি দিয়ে নিজের দান নেওয়ার পর আবার দান চালবে। দান জমিয়ে রাখার নিয়ম নেই।

 একটি খেলোয়াড়ের ১ টি গুটি বাইরে বাকিগুলো সব ভিতরে তাহলে সেই খেলোয়াড় অন্যের গুটি খেতে পারবে না যতক্ষন না সে ছক্কা ফেলে তার গুটি বের করছে কারণ গুটি খাওয়ার পর তাকে দান নিতে হবে। এভাবেই সাধারণত  লুডু খেলার নিয়ম টেকনিক পালন করা হয়ে থাকে। 

পরিসমাপ্তিঃ

গ্রাম বাংলায় লুডু খেলার দৃশ্য আমাদের কাছে অতি পরিচিত। লুডুখেলার নিয়ম ও টেকনিক  সহজ হওয়ায় এই খেলাটি সবার কাছেই অধিক প্রিয়। অনেকেই অবসর সময়ে এই খেলাটি খেলে থাকে। এবং অনেকের কাছে এটি নেশাতেও পরিণত হয়।

ট্যাগঃ লুডু খেলার নিয়ম , লুডু খেলার টেকনিক , লুডুডু ছক্কা

আরো পড়ুন-

শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *