হার্টের রোগীর খাবার তালিকা

হার্টের রোগীর খাবার তালিকা । যেসব খাবার এড়ানো উচিত!

হার্টের রোগীর খাবার তালিকা – বর্তমান সময়ে দিনকে দিন হার্টের রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলছে ৷ সেই সঙ্গে বাড়ছে হার্টের রোগ হওয়ার পর কি খেতে হবে তা নিয়ে দুশ্চিন্তা!

হার্টের রোগীর যেসব খাবার এড়ানো উচিত ভিডিও তে দেখতে এখানে ক্লিক করুন!

সাধারণত মধ্যবয়সী ব্যক্তিরা হার্টের সমস্যায় বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন ৷ নারী ও পুরুষ উভয়ের মধ্যেই আক্রান্ত হওয়ার হার অত্যন্ত ব্যাপক ৷ তাই এ সময়ে নিয়মমাফিক চলাফেরা করার বিশেষ প্রয়োজন ৷ আর এজন্যই, হার্টের রোগীর খাবার তালিকা নিয়ে সাজানো হয়েছে আমাদের আজকের এই অতি গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেল টি ৷ 

হার্টের রোগীর খাবার তালিকা 

হার্টের রোগীর খাবার তালিকা

হার্টের রোগীর খাদ্য তালিকা থেকে যা বাদ দিতে হবে

ট্রান্সফ্যাটযুক্ত খাবার হার্টের রোগীদের জন্য অত্যন্ত বিপদজনক৷ নিত্যদিনের ভাজাপোড়া, ফাস্ট ফুড, কুড়কুড়ে বা মচমচে কেনা খাবার, বেকারি ফুড ইত্যাদিতে প্রচুর পরিমানে ট্রান্সফ্যাট থাকে। আর এই ট্রান্সফ্যাট রক্তের যে খারাপ কোলেস্টেরল তা বাড়িয়ে দেয় ৷ এরফলে ভালো কোলেস্টেরল কমে যেয়ে হৃদরোগের ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়। এজন্য হার্টের রোগির খাদ্যতালিকা থেকে ফাস্টফুড (পিৎজা, ফ্রোজেন ফাস্টফুড), বেকারি ফুড (বিস্কুট, পাই, কেক) এগুলো বাদ দিতে হবে ৷

  • হার্টের রোগীর খাবার তালিকা থেকে গরুর চর্বি বাদ দিয়ে দিতে হবে ৷ এছাড়াও চর্বিযুক্ত ঘি,ডালডা বা বাটার এগুলোকে সম্পূর্ণরূপে পরিত্যাগ করে খাদ্যতালিকা সাজিয়ে নিতে হবে ৷ 
  • খাসির মাংস, গলদা চিংড়ী, গরুর মগজ ও গরু-খাসির কলিজা খাওয়া যাবেনা ৷
  • মাছের ডিম খাওয়া যাবেনা বলে অনেক বিশেষজ্ঞ মত দিয়েছেন ৷ তাই মাছের ডিম এরিয়ে চলতে হবে ৷
  • ডিমের কুমুস আপনার যতই ভালো লাগুক না কেন, ডিমের কুসুম আপনার খাওয়া চলবেনা একদমই ৷ 
  • টেস্টিং সল্ট বা অতিরিক্ত লবণ খাওয়া পরিহার করতে হবে ৷
  • সয়াবিন তেল ও সরিষার তেল দিয়ে রান্না না করাই ভালো হবে ৷ 
  • বাহিরে যেয়ে চানাচুর মুড়ি, ফুচকা এগুলো খাওয়া বন্ধ করুন ৷

>> হার্টের সমস্যার লক্ষণ – এই ১২ টি সমস্যায় ডাক্তারের পরামর্শ নিন!

যে সকল খাবার হার্টের রোগীর খাদ্য তালিকায় রাখতে হবে

  • মাছ হার্টের রোগীদের জন্য খুব ভালো পথ্য ৷ খাবারের তালিকায় তাই নিয়মিত মাছ রাখতে হবে ৷ 
  • সবুজ শাকসবজি ও ফলমূল নিয়মিত খেলে হার্টের রোগ হওয়া থেকে দূরে থাকা যায় ৷ আবার যারা এ সমস্যায় ভুগছেন তাদেরও ব্যক্তিভেদে দৈনিক ২ থেকে ৩ পদের ফল খেতে হবে ৷ এছাড়াও হার্টের রোগীদের খাদ্যতালিকায় দৈনিক সবুজ শাকসবজি ও রাখতে হবে ৷ 
  • প্রতিদিন নিয়মিত পানি পান করতে হবে ৷ পরিমানে অল্প পানি খেলে এমনিতেই হার্টের উপর চাপ পড়ে৷ আর রোগ ধরা পরলে পানি পানের পরিমাণ বাড়িয়ে দিতে হবে ৷ 
  • এছাড়াও মুরগির মাংস, মুরগির ডিম, ও গরুর দুধ খেলে উপকার হবে ৷ সাথে ডালও দৈনিক খাওয়া যেতে পারে ৷  
  • রান্নার তেল হিসেবে অলিভ অয়েল এর ব্যবহার সবচেয়ে ভালো হবে ৷ ভোজ্য তেলের বদলে অলিভ অয়েল ব্যবহার করে রান্না করলে হৃদরোগের রোগী পাশাপাশি সকলের জন্যই বেশি ভালো হবে ৷ 
  • কাঁচা ছোলা বা বুট হৃদরোগের রোগীর খাদ্য তালিকায় রাখতে হবে ৷ প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠে ছোলা-বুট খাওয়া খুবই উপকারী ৷
  • ফলের মধ্যে পেয়ারাখাবারের সাথে ও অন্যান্য সময়ে সালাদ খেতে হবে ৷ 

এছাড়াও হার্টের রোগীর খাদ্য তালিকা নিয়ে তার চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করে তিন বেলার খাদ্যতালিকায় তৈরি করা উচিত ৷ কেননা রোগীর বয়স,সমস্যার ধরন ও আর্থিক অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে দৈনিক খাদ্যতালিকা তৈরি করা সমুচিত হবে ৷ 

হার্টের রোগীদের নিয়মিত হাটাহাটি করার অভ্যাস করতে হবে ৷ ভোরে উঠে হাটাহাটি হার্টের রোগীদের জন্য বিশেষ ফলপ্রসূ ও ফলদায়ক ৷ এছাড়াও হালকা শরীরচর্চা, ইয়োগা ও নিয়মিত  প্রার্থনা তাদের শারীরিক ও মানসিকভাবে চাঙ্গা থাকতে সাহায্য করবে৷

মেডিসিন নির্ভর জীবনযাপন করবার চাইতে কষ্ট হলেও নিয়ম মেনে জীবনযাপন করা শ্রেয় ৷ 

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top