Betvisa #1 Online casino and Sports Betting App in Bangladesh!

আজকে আমি আপনাদের মাঝে বাংলাদেশের এক নাম্বার স্পোর্টস এক্সচেঞ্জ ওয়েবসাইট নিয়ে হাজির হয়েছি, যে ওয়েবসাইটের নাম হচ্ছে Betvisa তো আর দেরি না করে চলুন শুরু করা যাক

Betvisa কি?

অনেকেই অনলাইন বেটিং কিংবা ক্যাসিনোর মাধ্যমে ইনকাম করতে আগ্রহী, মানে ঘরে বসে বেটিং করতে চাই, বিশেষ করে ক্রিকেট বেটিং। যেহেতু আমাদের দেশে ক্রিকেট খুবই জনপ্রিয় একটি খেলা, তাই অনেকেই বিপিএল, আইপিএল, বিগ ব্যাশ ইত্যাদি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উপর বেটিং করার জন্য ওয়েবসাইট খুঁজে থাকেন। কিন্তু কোথায় বা কোন ওয়েবসাইটে বেটিং করবেন তা নিশ্চিতভাবে জানেননা। অনেকক্ষেত্রেই বিভিন্ন সাইটে টাকা ডিপোজিট করেও প্রতারিত হন। তো আপনি যদি একটি ভালো ক্রিকেট বেটিং সাইট খুঁজছে তাহলে আপনার জন্য এই Betvisa সাইটটি। এটি বাংলাদেশের বর্তমান সময়ের এক নাম্বার স্পোর্টস এক্সচেঞ্জ ওয়েবসাইট মানে সেরা ক্রিকেট বেটিং সাইট। এটি বর্তমানে সবচেয়ে বিশ্বস্ত ক্রিকেট বেটিংয়ের সাইট। আপনার যদি বেটিং এর উপর সাধারণ জ্ঞান থাকে তাহলে খুব সহজেই ভালো একটি এমাউন্ট ইনকাম করতে পারবেন।

Betvisa সাইটকে কেন বাছাই করবেন বেটিং এর জন্য?

আমি একটু আগেও বলেছি Betvisa বাংলাদেশের এক নাম্বার স্পোর্টস এক্সচেঞ্জ ওয়েবসাইট বা ক্রিকেট বেটিং সাইট। তো কেন এটি সেরা? কেন আপনি Betvisa এ বেটিং করবেন? অবশ্যই তো কোনো কারণ থাকতে হবে। তো নিচে আমরা ৮ টি কারন জানব কেন আপনি Betvisa কে বেটিং এর জন্য বাছাই করবেন।

১. এটি অত্যন্ত বিশ্বস্ত একটি সাইট। এখানে আপনি নিশ্চিন্তে বেটিং করতে পারবেন।

২. আপনি সকল মেজর মোবাইল ব্যাংকিং আ্যপ যেমন বিকাশ, নগদ ও রকেটসহ আরও কিছু মাধ্যমে উইথড্র দিতে পারবেন। আপনি প্রতিদিন সকাল ৮ টা থেকে রাত ১০ টার মধ্যে উইথড্র দিতে পারবেন।

৩.পেমেন্ট নিয়ে কোনো চিন্তা নেই। আপনি সাধারণত ৫ মিনিট থেকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে পেমেন্ট পেয়ে যাবেন। 

৪. আপনি বিকাশ, নগদ, রকেট ইত্যাদি মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে টাকা ডিপোজিট করতে পারবেন।

৫. একসাথে অনেকগুলো গেইমে বেট করতে পারবেন।

৬. খুব দ্রুত সাপোর্ট পাবেন। আপনি এখানে সপ্তাহে ৭ দিন ২৪ ঘণ্টা সাপোর্ট পাবেন। আপনি এখানে লাইভ চ্যাট ও ইমেইলের মাধ্যমে সাপোর্ট পাবেন। 

৭. সাধারণত উইথড্র কিংবা ডিপোজিটে কোনো ফি নেই।

৮. বেটিং করার পাশাপাশি এখান থেকে আপনি রেফার করেও ইনকাম করতে পারবেন।

সত্যিই কি ক্রিকেট বেটিং লাখ টাকা জিতে নেয়া যায়?

হ্যাঁ। চাইলের ক্রিকেট বেটিং দিয়ে লাখ টাকা ইনকাম করা সম্ভব। কিন্তু এর জন্য অবশ্যই ক্রিকেট সম্পর্কে আপনার ভালো জ্ঞান থাকতে হবে। ধৈর্য্য থাকতে হবে, কারণ আপনি একদিনেই লাখপতি হয়ে যাবেন না। আপনাকে চেষ্টা করতে হবে। তাছাড়া আপনাকে কিছু টেকনিক ফলো করতে হবে তাহলেই আপনি বেটিং করে ভালো ইনকাম করতে হবে। 

যেমনঃ যে খেলায় বেট ধরবেন সে গেইম নিয়ে একটু রিসার্চ করুন। আগে দল দুইটি কতবার মুখোমুখি হয়েছে আর কোন দল কতবার জিতেছে। পুরো টুর্নামেন্টের সব খেলার উপরই একটু নজর রাখুন। টিমে কোন কোন প্লেয়ার রয়েছে আর তাদের রিসেন্ট পারফরম্যান্স কেমন সেটি দেখুন। একসাথে কোনো সময়েই সব টাকা দিয়ে বাজি ধরবেন না। আর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ আত্মবিশ্বাস। এটি ছাড়া বেট করে কোন লাভ নেই। আপনার যদি নিজের উপরই বিশ্বাস না থাকে তাহলে আপনি জিতবেনই বা কি করে।

ক্রিকেট বেটিং ছাড়াও ক্রেজি টাইম খেলে লাখ টাকা আয়?

ক্রেজিটাইম নামটা যেমন আসলে বিজয়ী হবার চান্সও ঠিক তেমন, খুবই মজার একটি খেলা। এখানে একদম অল্প টাকা খরচ করে আপনি একটি বিশাল এমাউন্টের টাকা জিতে নিতে পারেন। ক্রেজি টাইমে ৮টি ঘর বা বক্স থাকে সেই ৮ টি ঘরের উপর বেট করবেন, আপনি চাইলে একটি ঘরে কিংবা দুইটি ঘরে বেট করতে পারেন। একটি হুইল / চাকা থাকবে। সেই হুইলটি বা চাকাটি ঘুরানো হবে। সেই হুইলে আপনার বেট করা ঘরে / বক্সে পড়লে, সেই ঘর বা বক্স অনুযায়ী আপনি ১০ থেকে ১০ লাখ পর্যন্ত জিতে নিতে পারেন। ঘর বা বক্স অনুযায়ী যে আপনি যে পরিমাণ বেট করেছেন তার কত গুণ আপনি পাবেন। এটি ইনকাম করার একটি সহজ উপায়৷ এতে কোনো রিসার্চ বা কিছুর প্রয়োজন হয়না। এটি সম্পূর্ণভাবে ভাগ্যের উপর নির্ভর করে। এখান থেকে আপনি অনেক ইনকাম করতে পারেন। ভাগ্যের চাকা ঠিক থাকলে ১০-১০০০ টাকা দিয়ে কয়েক লক্ষেরও অধিক টাকা জিতে নিতে পারেন। তাই দ্রুত নিসের নিয়মে Betvisa এ রেজিস্ট্রেশন করে নিন। 

Betvisa কিভাবে রেজিস্ট্রেশন করবেন?

Betvisa এ বেটিং করতে অবশ্যই আপনাকে তাদের ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। এখানে রেজিস্ট্রেশন করা একদম সহজ। কিন্তু রেজিস্ট্রেশনের কিছু পূর্বশর্ত রয়েছে। 

আপনার বয়স অবশ্যই ১৮ বা তার চেয়ে বেশি হতে হবে। আপনাকে বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে। আপনার নিজের একটি ফোন নাম্বার, ইমেইল এড্রেস, একটি মোবাইল ও ইন্টারনেট কানেকশন থাকতে হবে। এ কয়টি জিনিস আপনার অবশ্যয় লাগবে।

তো এখন আমি আপনাদেরকে স্টেপ বাই স্টেপ বলব কিভাবে Betvisa এ রেজিস্ট্রেশন করবেন।  আপনাদের বোঝার সুবিধার্থে নিচে ৪ টি স্টেপে ভাগ করে দিলাম।

স্টেপ: প্রথমে তাদের ওয়েবসাইটে যান। গুগল ক্রোম বা যেকোনো ব্রাউজারে গিয়ে টাইপ করুন betvisa.com। কিংবা আপনি নিচের দেওয়া লিংকে ক্লিক করে তাদের সাইটে যেতে পারেন।

লিংক: betvisa.com

তারপর আপনাদের সামনে ”Sign Up’  অপশন আসবে। সেখানে ”Sign Up’ বাটনে ক্লিক করুন।

স্টেপ: ‘Sign Up’ এ ক্লিক করলে তথা রেজিষ্ট্রেশন পেইজে নিয়ে যাওয়া হবে। 

সেখানে প্রথমে আপনার ইউজারনেইম দিন ও পাসওয়ার্ড দিন এবং তা কনফার্ম করুম। (পাসওয়ার্ড অবশ্যই ৬ থেকে ২০ অক্ষরের হতে হবে। পাসওয়ার্ডে সংখ্যা, ছোট হাতের ও বড় হাতের অক্ষর ও স্পেশাল অক্ষর [%,&,৳,#,@]  থাকতে হবে।) 

ফুল নেম সেকশন এ আপনার নাম দিন। তারপর আপনার ইমেইল দিন এবার আপনাকে আপনার ফোন নাম্বার দিতে হবে। অবশ্যই আপনার সচল ফোন নাম্বার যেটি আপনি সচারাচর ব্যবহার করে থাকেন।

এরপর ‘JOIN NOW’ এ ক্লিক করুন। নিচে রেজিস্ট্রেশন ফরম পূরণের একটি উদাহরণ দেওয়া হলো।

আপনার একাউন্ট সফলভাবে খোলা হয়ে গিয়েছে। এখন আপনার সামনে এরকম একটি ইন্টারফেজ আসবে। এখান থেকে Home Page এ ক্লিক করুন।

স্টেপ: এখন আপনি My Account অপশনে ক্লিক করুন। ক্লিক করার আরেকটি পেইজ শো করবে। সেখানে Profile সেকশনে Personal Info তে ক্লিক করুন। তারপর আপনার ফোন নাম্বার ও ইমেইল এড্রেস ভেরিফাই করুন। ভেরিফাই করার জন্য ‘Not Verified’ লেখায় ক্লিক করুন। তারপর আপনার ফোন নাম্বারে ও ইমেইল এড্রেসে ভেরিফিকেশন কোড আসবে সেটি দিয়ে দিন। তাহলে আপনার একটি ভেরিফাইড Betvisa একাউন্ট হয়ে গিয়েছে। একাউন্ট ভেরিফাইড করা প্রয়োজন। কারণ তাছাড়া আপনি উইথড্র করতে পারবেন না।

স্টেপ: এখন আপনি আবার Home এ ফিরে আসুন ও উপরে থাকা Deposit বাটনে ক্লিক করুন। তারপর দেখতে পারবেন আপনার সামনে তিনটি অপশন আছে Bkash, Nagad ও Rocket। আপনার যেটির মাধ্যমে ডিপোজিট করতে চান সেটি সিলেক্ট করুন।  ধরুন আপনি বিকাশ দিয়ে করবেন। তো সিলেক্ট করলে আপনাকে অন্য একটি পেইজে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে আপনি একটি নাম্বার দেখতে পারবেন সেটি কপি করুন ও আপনার বিকাশ একাউন্টে গিয়ে সে নাম্বারে টাকা পাঠিয়ে দিন। টাকা পাঠানো শেষ হলে একট স্ক্রিনশট নিন ও সাইটে এসে সাবমিট করুন।  ট্রান্স্যাকশন আইডিটি কপি করে Reference Id/ Trx Id এর জায়গায় পেস্ট করুন। তারপর Submit এ ক্লিক করুন। ব্যাস! আপনার একাউন্টে সাথে সাথেই টাকা এসে পড়বে। আপনি এখানে ৫০০ টাকা থেকে ২৫০০০ টাকা পর্যন্ত ডিপোজিট করতে পারেন।

উপসংহার: অবশেষে এই বলব যে, নিঃসন্দেহে Betvisa বাংলাদেশের এক নাম্বার স্পোর্টস এক্সচেঞ্জ ওয়েবসাইট। এটি খুবই বিশ্বস্ত। একটু অভিজ্ঞতা থাকলেই এখান থেকে খুব সহজেই ইনকাম করতে পারবেন। অন্তত একবার হলেও  ওয়েবসাইটটিতে বেটিং করে দেখতে পারেন। উপরে লিংক দেওয়া আছে সেখান থেকে সাইন আপ করুন।

তো আজকের জন্য এতটুকুই। ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন সেই কামনায় আজকের জন্য বিদায় জানাচ্ছি। পোস্টটি পড়ার জন্য, Betvisa সঙ্গেই থাকুন, ধন্যবাদ। 

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top