Napa Extra

কোন ক্ষেত্রে NAPA EXTRA খাওয়া উচিত? যেভাবে কাজ করে জানুন বিস্তারিত!

Napa Extra ট্যাবলেট প্যারাসিটামল ও ক্যাফেইনের একটি সমন্বিত ঔষধ। প্যারাসিটামলের ব্যথানাশক এবং জ্বর উপশমক গুণাবলীর সাথে কিছুটা প্রদাহবিরোধী কার্যকারিতাও রয়েছে। এতে থাকা ক্যাফেইন হচ্ছে একধরনের অ্যালকালয়েড যা থিওফাইলিন সদৃশ জ্যানথিন যৌগ। 

আমাদের দেশে বহুল ব্যবহৃত Napa Extra নিয়ে আজকের আলোচনা করবো। এখানে Napa Extra এর ব্যবহার, উপকার ও অপকারিতা, এবং দামসহ যাবতীয় বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। 

Napa Extra এর উপকারিতা

Napa Extra ব্যবহার করলে বহুমাত্রিক রোগের উপশম হয়। এই প্যারাসিটামলের উপকারিতা বলে শেষ করা যাবে না। চলুন জেনে নিই Napa Extra-র কয়েকটি বিশেষ উপকারিতা। 

১. জ্বর,

২. মাথাব্যথা ও মাইগ্রেইন,

৩. সাধারণ সর্দিজ্বর ও ফ্লু, 

৪. কণ্ঠনালীর প্রদাহ, 

৫. কান ব্যথা,

৬. দাঁত ব্যথা, পিঠ ব্যথা, 

৭. বাত ও মাংসপেশীর ব্যথা, 

৮. স্নায়বিক যন্ত্রণা এবং 

৯. ঋতুস্রাবজনিত ব্যথার ক্ষেত্রে নির্দেশিত।

এছাড়াও আরো বিভিন্ন ব্যথা ও প্রদাহজনিত সমস্যার সমাধান নাপা এক্সট্রা-তে রয়েছে। 

ফার্মাকোলজিস্টদের মতে নাপা এক্সট্রা মূলত, একটি প্যারাসিটামল ও ক্যাফেইনের সমন্বিত একটি ঔষধ। এই প্যারাসিটামলের ব্যথানাশক এবং জ্বর উপশমক গুণাবলীর সাথে কিছুটা প্রদাহবিরােধী কার্যকারিতাও রয়েছে। 

Napa Extra যেভাবে কাজ করে

প্যারাসিটামলের সাথে আন্তঃআণবিক সংযুক্তির মাধ্যমে ক্যাফেইন, প্যারাসিটামলের দ্রবণীয়তা ও আন্তঃমেমব্রেন ভেদ্যতা খুব ভালোভাবে বৃদ্ধি করে। এছাড়াও ক্যাফেইনে থাকা পেইন থ্রেশোল্ড এবং পেইন সহনীয়তা বৃদ্ধি করে। ক্যাফেইন মস্তিষ্কের ভেসেল টোন বৃদ্ধি করে যা মাইগ্রেন ও মাথাব্যথার চিকিৎসায় সহায়ক।

Napa Extra খাওয়ার নিয়ম

দিনে ১-২ টি ট্যাবলেট প্রয়ােজনমাফিক প্রতি ৪ ঘন্টা অন্তর অন্তর গ্রহণ করা যেতে পারে। অথবা চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী নির্দিষ্ট সময়ে সেব্য। ১২ বছরের নীচে শিশুদের ক্ষেত্রে নাপা এক্সট্রা অনুমেদিত নয় তবে প্রয়োজন অনুযায়ী ডাক্তার সিরাপ বা সাসপেনশন পেসক্রাইভ করতে পারে।

Napa Extra ব্যবহারে সতর্কতা

আমাদের দেশে সাধারণ মানুষ যেকোনো সমস্যার সমাধান নাপা এক্সট্রা তে খুঁজে থাকে।  যা আমাদের জাতীয় স্বাস্থ্যের ব্যাপারে হুমকি স্বরূপ। তাই নাপা এক্সট্রা গ্রহণ করার ক্ষেত্রে জানতে হবে কোন কোন ক্ষেত্রে সাবধানে ব্যবহার করা উচিত। 

  • তীব্র লিভার ও কিডনি রোগের ক্ষেত্রে নাপা এক্সট্রা ভীষণ সতর্কতার সাথে ব্যবহার করতে হবে। 
  • নাপা এক্সট্রা ঔষধ সেবনকালে অন্যান্য প্যারাসিটামল সমৃদ্ধ ঔষধ সেবন করা যাবে না।
  • অতিরিক্ত চা বা কফি পান থেকে বিরত থাকতে হবে নাপা এক্সট্রা সেবন চলমান থাকলে।

Napa Extra এর দাম

বর্তমান বাজার দর হিসেবে নাপা এক্সট্রা এর দাম ২ টাকা ৪৯ পয়সা প্রতি পিস।

২৪০ পিসের এক বাক্সের দাম ৫৯৮ টাকা।

Napa Extra এর অপকারিতা

না বুঝে প্যারাসিটেমল গ্রহণে রয়েছে বেশকিছু শারীরিক ক্ষতি, যা আমাদেরকে সুস্থ করে তোলার বিপরীতে দীর্ঘ মেয়াদি অসুস্থতার দিকে ঠেলে দেয়।

  • তীব্র লিভার ও কিডনী রােগের ক্ষেত্রে এটি সতর্কতার সাথে ব্যবহার করতে হবে। প্যারাসিটামল, ক্যাফেইন বা এর কোন উপাদানের প্রতি অতিসংবেদনশীলতায় এটি গ্রহণে নিষেধ করা হয়। 
  • অনুমােদিত মাত্রায় নাপা এক্সট্রা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া মুক্ত। তবে কদাচিৎ ত্বকের সংক্রমণ যেমন, চামড়ার উপরিভাগে আর্টিক্যারিয়া দেখা দিতে পারে।
  • নাপা এক্সট্রা ক্লোরামফেনিকল এবং কুমারিনের রক্ত জমাট বিরোধী গুন বাড়িয়ে দেয়। অ্যালকোহল সেবনকারী অথবা যে সমস্ত রোগী খিচুনীর ওষুধ সেবন করছেন তাদের ক্ষেত্রে প্যারাসিটামলের মাধ্যমে যকৃতে বিষক্রিয়া তৈরীর ঝুঁকি খুব বড় অংশে বাড়তে পারে।

অন্যান্য ঔষধের সাথে Napa Extra এর মিথস্ক্রিয়া

নাপা এক্সট্রা এন্টিকোয়াগুলেন্ট দ্বারা নিয়ন্ত্রিত প্রোথ্রম্বিন সময়কে ভালো করে প্রভাবিত করতে পারে। এলকোহল বা প্যারাসিটামলের লিভার মেটাবলিজম বৃদ্ধি করে এমন ঔষধ যেমন-বারবিচুরেট, ট্রাইসাইক্লিক এন্টিডিপ্রেসেন্ট- এগুলোর সাথে এটির যৌথ ব্যবহার লিভারের উপর ক্ষতিকর প্রভাব বৃদ্ধি করে।

তাই আপনার যদি ভিন্ন কোনো অসুখের ট্রিটমেন্ট চলমান থাকে তাহলে নাপা এক্সট্রা গ্রহণের পূর্বে ডাক্তারের কাছ থেকে অবশ্যই বিস্তারিত জেনে তারপর ঔষধ সেবন করবেন। 

Napa Extra এর গর্ভাবস্থাকালীন ব্যবহার

এপিডেমিওলজিক্যাল তথ্য অনুযায়ী গর্ভাবস্থায় ও স্তন্যদানকালে প্যারাসিটামল ব্যবহার যদিও নিরাপদ, সর্বোপরী এটি সেবনের পূর্বে চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া উচিৎ।

নাপা এক্সট্রা ওভারডোজ হলে প্রথম ২৪ ঘন্টার মধ্যে যে লক্ষণ গুলি প্রকাশিত হয় সেগুলো হলো: 

  • মুখ ফ্যাকাশে হয়ে যায় সাথে বমি বমি ভাব এমনকি বমি হতে পারে।
  • হজম না হলে অ্যানোরেক্সিয়া এবং তীব্র পেটে ব্যথা। 
  • সাধারণত খাওয়ার ১২ থেকে ৪০ ঘন্টা পরে লিভারের ক্ষতি স্পষ্ট হতে পারে। 
  • গ্লুকোজ বিপাক এবং বিপাকীয় অ্যাসিডোসিসের অস্বাভাবিকতা ঘটতে পারে।

সমস্যা গুরুতর হলে যতদ্রুত সম্ভব হাসপাতাল বা ক্লিনিকে গিয়ে চিকিৎসা গ্রহণ করা প্রয়োজন।

শেষকথা 

Napa Extra ট্যাবলেট আলাে ও তাপ থেকে দূরে শুষ্ক স্থানে রাখুন, যেকোনো ঔষধ সব সময় শিশুদের নাগালের বাইরে রাখুন। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপট বিবেচনায় মানুষকে আরো সচেতনতার সাথে Napa সিরিজের ঔষধগুলো ব্যবহার করা উচিত। 

আপনার মনে কোন প্রশ্ন থাকলে এখানে ক্লিক করুন!

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Scroll to Top