মাহি- দ্যা মাস্টারমাইন্ড

যদি আপনাকে ক্রিকেটের সেরা অধিনায়ক হিসেবে কাউকে বেছে নিতে বলা হয় তাহলে ‘ধোনি’র নামটা অবলীলায় আপনার মনে এসে পড়বে। নেতৃত্বদানের এক অভূতপূর্ব ক্ষমতা থেকেই তিনি হয়ে উঠেছেন বিশ্ব ক্রিকেটে সর্বকালের সেরা অধিনায়কদের একজন, ভারতীয় ক্রিকেটের তো বটেই।
নেতৃত্বদানের প্রতিভার জোরেই তার ঝুলিতে উঠেছে একের পর এক আইসিসি ট্রফি।

পরিচয়ঃ

 

আজকের ক্রিকেটের সর্বশেষ খবর

নাম- মহেন্দ্র সিং ধোনি।
ডাকনাম- মাহি।
জন্ম- ৭ জুলাই, ১৯৮১; রাঁচি, ঝাড়খন্ড।
অভিভাবক- পান সিং (বাবা), দেবকী সিং (মা)

ধোনির ছেলেবেলাঃ আজকের ক্রিকেটের সর্বশেষ খবর

ডিএভি জহর বিদ্যা মন্দির থেকে ধোনির প্রাথমিক শিক্ষাজীবন শুরু হয়। পড়াশোনার পাশাপাশি সেখানে খেলাধূলাও শুরু করেন তিনি। মজার ব্যাপার হলো, সেখানে স্কুলের ফুটবল একাডেমিতে যোগ দেন ধোনি। এবং সেই ফুটবল ক্লাবে একজন গোলরক্ষক হিসেবে নজর কাড়েন অনেকের। আপনি জেনে অবাক হবেন যে, জেলা ও ক্লাব পর্যায়ের হয়েও তিনি ফুটবল খেলেছেন একসময়। আজকের ক্রিকেটের সর্বশেষ খবর
তাহলে কীভাবে ফুটবল থেকে তার ক্রিকেটে আবির্ভাব? এর কারণটাও বেশ মজার। স্থানীয় একটি ক্রিকেট দলে উইকেটরক্ষক না থাকায় তার ফুটবল কোচই তাকে অনুপ্রাণিত করেন ক্রিকেট খেলার জন্যে। কিংবা কে জানে, হয়তো তিনি হদিস পেয়েছিলেন মাহির মধ্যে লুকিয়ে থাকা সুপ্ত ক্রিকেট প্রতিভার।
স্যারের নির্দেশনা মত ক্রিকেট ক্লাবে প্র্যাকটিস শুরু করেন মাহি এবং এভাবেই তার ক্রিকেট ক্যারিয়ার শুরু হয়।  আজকের ক্রিকেটের সর্বশেষ খবর
 স্কুল-শিক্ষা সমাপ্ত করে তিনি গ্র্যাজুয়েশনের জন্য প্রস্তুত হন রাঁচির সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজে। কিন্তু ক্রিকেট খেলাকে নেশা এবং পেশা হিসেবে নেওয়ার কারণে তিনি তার গ্র্যাজুয়েশন সমাপ্ত করতে পারেননি।

ধোনির মধ্যরাতের ট্রেনঃ

জীবিকার তাগিদে ২০০১ সাল থেকে ২০০৩ সাল, এই দুইবছর ট্রেনের টিকিট চেকার হিসেবে কাজ করেছিলেন তিনি। এই দুটি বছরকে ধোনির জীবনের কালরাত হিসেবেও আখ্যায়িত করা চলে। টিটিই হিসেবে পশ্চিমবঙ্গের খড়গপুর স্টেশনে চাকুরী হয় তার। প্রতিটা দিনই যেত যাত্রীদের টিকিট চেক করে। ক্রিকেটার হওয়ার ইচ্ছেটা যেন আটকে গিয়েছিলো খড়গপুর স্টেশনের মলিন প্ল্যাটফর্মে। কিন্তু তখনও ধোনি বুকে লালন করতেন ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন। আশা ছিলো রেলওয়ে টিমের হয়ে রঞ্জি ট্রফি খেলবেন। আজকের ক্রিকেটের সর্বশেষ খবর তবে সেই আশা ভেস্তে যায় যখন রেলওয়ে দল নির্বাচনে তাকে বাছাই করা হয় না। নির্বাচকরা মনে করেন, রেলওয়ে টিমের হয়ে খেলার জন্য তার কোন যোগ্যতা নাই। এরপরেই আসে ধোনির জীবনে একটা গুরুত্বপূর্ণ বাঁক। নিতে হয় তাকে জীবনের কঠিনতম সিদ্ধান্ত। পূনরায় ফিরে আসেন ক্রিকেটে। আর এটিই ছিলো ধোনির মধ্যরাতের ট্রেন।

ক্রিকেট ক্যারিয়ারঃ

২০০২ সাল থেকে ২০০৪ সালের এই মাঝামাঝি সময়ে বেশকটি টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করেন ধোনি যার মধ্যে; রঞ্জি ট্রফি, দেবদার ট্রফি ও দেওধর ট্রফি অন্যতম। উক্ত টুর্নামেন্টগুলোতে ধারাবাহিকভাবে পারফরমেন্স করেন তিনি। ফলশ্রুতিতে ২০০৩-২০০৪ সালে কেনিয়ার ও জিম্বাবুয়ে বিপক্ষে তখনকার ভারতীয় এ দলে ডাক পান। সে দলের হয়ে জিম্বাবুয়ে, কেনিয়া ও পাকিস্তান এই ৩টি দলের সাথে ধনি তার সেরা খেলাটি খেলেন।  আর নজর কাড়েন তৎকালীন ভারতের জাতীয় দলের অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলির। এবং তারপর থেকেই শুরু হয় ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেটে তার পথ চলা। আজকের ক্রিকেটের সর্বশেষ খবর

চলুন দেখে নি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে মাহেন্দ্রসিং ধনির তিন ফরম্যাটের রেকর্ডঃ-

ওয়ানডে রেকর্ডঃ
ম্যাচ- ৩৫০
রান- ১০,৭৭৩
ব্যাটিং গড়- ৫০.৫৭
১০০/৫০= ১০/৭৩
সর্বোচ্চ রান- ১৮৩*
ক্যাচ/ স্ট্যাপিং- ৩২১/১২৩

টেস্ট রেকর্ডঃ
ম্যাচ- ৯০
রান- ৪,৮৭৬
ব্যাটিং গড়- ৩৮.০৯
১০০/৫০= ৬/৩৩
সর্বোচ্চ রান- ২২৪
ক্যাচিং/স্ট্যাম্পিং- ২৫৬/৩৮

টি-টোয়েন্টি রেকর্ডঃ
ম্যাচ- ১৩১
রান- ৭,০৩৮
ব্যাটিং গড়- ৩৬.৮৪
১০০/৫০= ০/২
সর্বোচ্চ রান- ৫৬
ক্যাচিং/স্ট্যাম্পিং- ৫৭/৩৪

ব্যাক্তিগত জীবনঃ আজকের ক্রিকেটের সর্বশেষ খবর

ছোটবেলা থেকেই তিনি জন আব্রাহামের ভক্ত ছিলেন। তার বড় চুল এবং বাইক প্রেমের মূল কারণ আসলে এটিই।
ব্যাক্তিগত জীবনে মাহি বেশ ধার্মিক একজন মানুষ। রাঁচির দেওড়ি মন্দিরে প্রায়শই যাতায়াত আছে তার। আজকের ক্রিকেটের সর্বশেষ খবর
পছন্দের খাবারের তালিকায় চিকেন তার সবচেয়ে প্রিয় খাবারগুলির একটি। চিকেনের যেকোনো আইটেমই ভালো লাগে তার।
World Wrestling Entertainment (WWE) এর নিয়মিত দর্শক মাহি। তার প্রিয় রেসলার ছিলেন ব্রেট ‘দ্যা হিটম্যান’ হার্ট।
২০১০ সালের জুলাই মাসে কলকাতার সাক্ষী রাওয়াতকে বিয়ে করেন ধোনি। একমাত্র কন্যা ‘জিভা’কে নিয়ে বেশ সুখে শান্তিতেই দিন কাটাচ্ছেন ধোনি-দম্পত্তি।

***লিখেছেন- আরিফুল আবির ***

আরো পড়ুন-

2 thoughts on “মাহি- দ্যা মাস্টারমাইন্ড

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *