মোটা হওয়ার সহজ উপায় -এবার সমাধান মিলবেই!

মোটা হওয়ার সহজ উপায়, প্রবাদ আছে স্বাস্থ্যই সকল সুখের মুল। সুন্দর দেহ, আর ভাল স্বাস্থ্য আমরা সবাই চাই। কেউ কেউ আছে জন্মগত ভাবেই ভাল স্বাস্থ্যের অধিকারি হয়ে থাকে।

তবে আমাদের মধ্যে অনেকেই আছে যারা তুলনামূলক ভাবে অনেক শুকনা বা চিকন। আমরা প্রত্যেকেই চাই সুস্থ্য, সুন্দর এবং ফিট থাকতে। আপনিও নিশ্চয় ঠিক এমন টাই চান তাই নয় কি?

চিকন থেকে মোটা বা স্বাস্থ্যবান অথবা ফিট যা ই বলি না কেন এই প্রক্রিয়া টি খুব সহজ না। তবে সঠিক নিয়ম মেনে চলতে পারলে এটি তেমন কোন কঠিন ব্যাপার নয়।

আমরা অবশ্যই আজ আপনাকে  মোটা হওয়ার সহজ উপায় গুলো জানাবো। কিন্তু আপনাকে একটি দীর্ঘমেয়াদি প্লান করতে হবে।

কেননা আপনি ইচ্ছে করলেই ২ দিন বা ৭ দিনে মোটা বা স্বাস্থ্যবান হতে পারবেন না। আপনাকে ২-৬ মাসের একটি রুটিন মেনটেইন করে চলতে হবে।

আপনি হয়তো ইতিমধ্যেই অনেক উপায়ে চেষ্টা করেছেন মোটা বা স্বাস্থ্যবান হতে। এর মধ্যেই আপনি হয়তবা বেশ কয়েকবার ধৈর্য হারিয়েছেন। তাই বলে রাখছি আপনি মোটা হওয়ার সহজ উপায় কে বাস্তবে রুপ দিতে হলে আপনাকে অবশ্যই ধৈর্যশীল হতে হবে। হাল ছেড়ে দিলে চলবে না।

আজ আমরা কথা বলবো মোটা হওয়ার সহজ উপায় নিয়ে। আমরা আজ মোটা হওয়ার বেশ কয়েকটি সহজ উপায় নিয়ে আলোচনা করবো। চলুন তাহলে শুরু করি-

মোটা হওয়ার সহজ উপায় –

মোটা হওয়ার সহজ উপায়

#১ ব্যায়াম করুন

আমরা চিকন বা শুকনা থাকার কারনে আমাদের মনে যে ভুল ধারণা টি জন্ম নেয় সেটি হলো শুকনা বা চিকন রা ব্যায়াম করতে হয় না। অনেকেই মনে করে আমি তো শুকনা আমি ব্যায়াম করবো কেন! এটি অনেক বড় একটি ভুল ধারণা।

ব্যায়াম শুকনা কিংবা শুধুমাত্র মোটা মানুষদের জন্য না। এটি প্রত্যেক মানুষের সুস্থ্যতার জন্যই প্রযোজ্য।

সাধারণত আপনাদের মনে যেই প্রশ্ন টি জাগে সেটি হলো- যারা মোটা তারা শরীর কমিয়ে ফিট হওয়ার জন্যে ব্যায়াম করে। কিন্তু আমরা শুকনা বা চিকন শরীরের অধিকারি যারা, আমরা কেন ব্যায়াম করবো

আসলে ব্যায়াম করার জন্যে আপনি চিকন নাকি মোটা সেটি কোন বিষয় না। ব্যায়াম করার মেইন কারন হচ্ছে শারীরিক এবং মানসিক ভাবে ফিট হওয়া।

তাই আপনাকে সুন্দর দেহের অধিকারি হতে হলে অবশ্যই ব্যায়াম করতে হবে। নিয়মিত ব্যায়াম করার ফলে আপনার বডি স্ট্রেস হতে থাকবে। ব্যায়াম এবং সঠিক ভাবে খাবার গ্রহণ করলে অবশ্যই আপনি স্বাস্থ্যকর শরীর পাবেন।

তাই নিজেকে ফিট রাখতে আজ থেকেই ব্যায়াম শুরু করুন।

আরো জানুন-

#২ সময় মতো ঘুম

মোটা হওয়ার সহজ উপায় গুলোর মধ্যে এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের শরীর সুস্থ্য এবং ফিট রাখতে হলে আমাদের অবশ্যই প্রতিদিন ৬-৮ ঘন্টা ঘুমাতে হবে। সময় মতো না ঘুমালে এবং পরিমানের চেয়ে কম ঘুমালে এর প্রভাব আমাদের শরীরে বাজে ভাবে পড়ে।

আপনি যদি সত্যিই নিজের শরীর পরিবর্তণ করতে চান, আপনি যদি মোটা হতে চান, তাহলে আজ থেকে প্রতিদিন ৬-৮ ঘন্টা ঘুমান। নিয়মিত এটি মেনে চলুন। কিছুদিনের মধ্যেই আপনি ফলাফল দেখতে পাবেন।

#৩ ভোর বেলা ঘুম থেকে উঠা

ইদানিং আমাদের যারা ইয়াং জেনারেশন আছে। তাদের মধ্যে যে বদ অভ্যাস টি দেখা যায় সেটি হলো ভোর বেলা ঘুম থেকে না উঠা। এটি খুবই খারাপ একটা বিষয়।

ইসলাম আমাদের কে শিক্ষা দেয় ভোর বেলা ঘুম থেকে উঠতে, সকাল বেলা ফজরের নামাজ পড়ে একটি শারীরিক ব্যায়াম করতে পারেন। হাটতে বা জগিং করতে বেরিয়ে পড়ুন। এটি আমাদের ফিট রাখতে দারুন ভাবে সহায়তা করে।

#৪ বারবার খাবার গ্রহণ

একসাথে অনেক খাবার খাওয়া ঠিক নয়। সব সময় পরিমিত খাবার গ্রহণ করুন। তবে মোটা বা স্বাস্থ্যবান হতে হলে আপনাকে অবশ্যই নিয়ম মাপিক খাবার খেতে হবে।

তাই একসাথে অনেক খাবার না খেয়ে কিছুক্ষন পর পর খাবার গ্রহণ করুন। যে খাবার গুলো খেলে মোটা, স্বাস্থ্যবান বা ফিট হতে পারবেন, তার একটি তালিকা নিচে দেয়া হলো-

সকালের নাস্তায় এই খাবার গুলো রাখতে পারেন-

  • ভাত, খিচুড়ি বা পরোটা
  • ডিম ভাজি বা পোজ
  • সবজি ভাজি বা ভর্তা
  • সাথে মিষ্টি জাতীয় যে কোন খাবার

দুপুরের আগে কিছু ফল খেতে পারেন। যা আপনার শরীরের পুষ্টির ঘাটতি দূর করবে।

দুপুরে এই খাবার গুলো খতে পারেন-

  • ভাত,পোলাউ, ফ্রাই রাইস, গরু বা মুরগির মাংস ভুনা, মাছ ভাজা বা রান্না সাথে রাখতে পারেন গন ডাল।
  • হরেক রকম সবজি বেশি করে খান, ভাজি করে বা ভর্তা ও খেতে পারেন।
  • অবশ্যই খাবারের সাথে সালাত রাখুন।

সন্ধায় নানা রকমের পছন্দ মত খাবার খেতে পারেন-

  • পুডিং খেতে পারেন।
  • হালিম এবং পরোটা খেতে পারেন।
  • কেক বা মিষ্টি খাবার রাখুন।
  • নুডলস খান নিয়মিত।

রাতের খাবার ইচ্ছে করলে দুপুর অনুযায়ী ও করতে পারেন-

  • রাতে ভাতের পরিবর্তে পরোটা খেতে পারেন।
  • ফিরনি বা মিল্ক শেক রাখতে পারেন।
  • নুডলস বা সেমাই খেতে পারেন।

এছাড়া ও আপনি আপনার পছন্দ মতো যে কোন পুষ্টিকর খাবার খেতে পারেন। চাইলে এই তালিকা থেকে আপনি যেকোন খাবার বাদ ও দিতে পারেন।

#৫ নিয়মিত ড্রাইফুট গ্রহণ- মোটা হওয়ার সহজ উপায়

পুষ্টিকর খাবারের তামোটা হওয়ার সহজ উপায়লিকা

ড্রাইফুট অত্যন্ত শক্তিশালী খাবার। নিয়মিত এটি গ্রহণ করলে আপনার শরীরের পুষ্টির ঘাটতি বা অভাব দূর হবে।

প্রতিদিন কয়েকটি খেজুর, বাদাম, কিসমিস হতে পারে আপনার জন্যে মোটা হওয়ার সহজ উপায়

তবে মোটা বা স্বাস্থ্যবান হওয়া খুব কঠিন না হলেও খুব সহজ ও বলা যাবে না। আপনাকে একটি দীর্ঘমেয়াদী প্লান করে এগোতে হবে।

চলুন জেনে নি কোন ড্রাইফুটস গুলো আপনার প্রতিদিন গ্রহণ করা উচিত-

  • কাঠবাদাম- প্রতিদিন ৫-৭ টি কাঠ বাদাম খেতে পারেন। এতে আছে ফ্যাটি এসিড, ফাইবার ও প্রোটিন। শরীর ফিট রাখতে নিয়মিত কাঠবাদাম খাওয়া যেতে পারে।
  • খেজুর- প্রতিদিন ২-৫ টি খেজুর খেতে পারেন। এটি শরীর গঠনে বেশ কার্যকর।
  • কিসমিস- এটি দাঁত কে সুস্থ্য রাখে। তাছাড়া কিসমিস ও শরীর গঠনে বেশ কার্যকারী।

আরো পড়ুন-

#৭ বাহিরের খাবার

সাধারণত আমরা বাহিরের খাবার খেতে নিষধ করে থাকি। কিন্তু আপনি ওজন বাড়াতে বা মোটা হতে চাইলে বাহিরের খাবার খেতে পারেন। কিন্তু অবশ্যই অতিরিক্ত নয়। বাহিরের খাবার যেমন বার্গার, আইস্ক্রিম, পেস্ত্রি, কোল্ড ড্রিংক্স আপনি চাইলে পরিমাণ মতো খেতে পারেন।

আপনার খাবারের তালিকায় চকলেট ও রাখুন।

আরো পড়ুন মোটা হওয়ার টিপস

#৮ দুশ্চিন্তামুক্ত থাকুন- মোটা হওয়ার সহজ উপায়

অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা স্বাস্থ্য এবং মন মানসিকতা দুটোই খারাপ করে দেয়। আমাদের উচিত দুশচিন্তা মুক্ত থাকা। দুশচিন্তার কারণে ওজন কমে যেতে পারে। তাই আমাদের দুশচিন্তা মুক্ত থাকা উচিত

তাই বেশি চিন্তা না করে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা করুন- কাজে লাগান এই মোটা হওয়ার সহজ উপায় গুলোকে।

সর্বোপরি আপনি চাইলে একজন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিতে পারেন।

আরো পড়ুন-

শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *